Breaking News

কথায় আছে যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে, সেদিনের সেই বিউটি কুইন এখন ভারতীয় সেনার গর্ব, স্যালুট লেফটেন্যান্ট গরিমা!

সেদিনের বিউটি কুইন এখন ভারতীয় সেনার গর্ব, সেলাম লেফটেন্যান্ট গরিমা!ইচ্ছে থাকলে কী না করা সম্ভব। জলজ্যান্ত উদাহরণ গরিমা যাদব। যিনি ২০১৭ সালে একটি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় মিস চার্মিং ফেস-এর খেতাব জয় করেছিলেন।

সেই সুন্দরীই এখন ভারতীয় জওয়ান। মডেলিং তাঁর জীবনের প্রথম পছন্দের কাজ ছিল না। আচমকাই সেখানে চলে গিয়েছিলেন গরিমা। সিমলার আর্মি পাবলিক স্কুল থেকে পড়াশোনা শেষ করেন গরিমা। এর পর সেন্ট স্টিফেন্স কলেজে ভরতি হন তিনি। পরে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়।

কিন্তু সবসময়ই তিনি ভারতীয় বায়ুসেনার অফিসার হতে চাইতেন। কিন্তু IAS-এর পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেননি। পরে CDS পরীক্ষায় পাশ করে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেন তিনি। মহিলাদের সর্বভারতীয় পরীক্ষায় দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন গরিমা।

গরিমার মতে, লোকজনের মধ্যে একটি ভুল ধারণা রয়েছে যে এসএসবিতে সফল হতে হলে সব ধরণের খেলায় ভাল হওয়া উচিত। কিন্তু তা ভুল। কেবল নিজের দুর্বলতার দিকে মনোনিবেশ করতে হবে এবং সেদিকেই কাজ করতে হবে।

গ্ল্যামারের মঞ্চ থেকে রাইফেলের পিছনে৷ দুটো জগত একেবারেই আলাদা৷ কিন্তু এই দুই জগতেই সমান বিচরণ ২৫ বছরের এই মেয়ের৷ তিনি গরিমা যাদব৷হরিয়াণার মেয়ে গরিমা ছোট থেকেই স্বপ্ন দেখতেন আইএএস অফিসার হওয়ার৷ সিঙ্গল মায়ের সন্তান গরিমা পড়াশোনা করেছেন সিমলার আর্মি পাবলিক স্কুল থেকে৷

দিল্লির সেন্ট স্টিফেনস কলেজ থেকে ইকনমিক্সে বি.এ করার পরই শুরু করেছিলেন সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার ট্রেনিং৷এর মধ্যেই ২০১৭ সালে মিস চার্মিং ফেস খেতাব জেতেন গরিমা৷ ইতালিতে আন্তর্জাতিক প্যাজেন্টে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগও পান৷কিন্তু ততদিনে ঠিক করে নিয়েছেন আর্মিতে যোগ দেবেন৷ তাই সিডিএস পাশ করে যোগ দেন চেন্নাইয়ের অফিসারস ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে৷

সোশ্যাল মিডিয়ায় গরিমার কাহিনি আপাতত নজর কেড়েছে নেটিজেনদের। ভাইরাল গরিমা যাদবের কাহিনি অনেকেরই অনুপ্রেরণা হয়েছেন।

About admin

Check Also

২৪ বছর আগে আস্তা’কুঁড় থেকে তুলে ঘরে এনেছিলেন, মিঠুনের সেই মেয়ে এবার বলিউডে পা রাখতে চলেছে !

২৪ বছর আগে আ’স্তাকুঁড় থেকে তুলে ঘরে এনেছিলেন, মিঠুনের সেই মেয়ে এবার বলিউডে!বেশ কয়েক বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *