Breaking News

BIG BREAKING: চীনের ওপর ভারতের ডিজিটাল স্ট্রা’ইক, টিকটক সহ 59 টি চায়না অ্যাপ ব্যান করল ভারত সরকার! রইলো বিস্তারিত

করার মত মহামা’রীর পরেও চীনের বিরু’দ্ধে কোনো রকম পদক্ষেপ নেয়নি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু ভারত ও চীন সীমান্তে যেভাবে ভারতের সেনারা শহীদ হলেন তার ফলে চীনের বিরুদ্ধে সরাসরি বিরোধীতাতে গেল ভারত। ভারতবর্ষের নাগরিকদের ফোন থেকে 59 টি চাইনিজ অ্যাপ কে ব্লক করার পরামর্শ দিল ভারতীয় গোয়েন্দা বিভাগ।

চীনের বিরুদ্ধে একটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ভারত সরকার ৫৯ টি চীনা অ্যাপ্লিকেশন নিষিদ্ধ করেছে। এটিতে বিখ্যাত অ্যাপস টিকটক এবং পাবজি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এছাড়া মানুষজন যাতে এই ধরনের এড গুলো ব্যবহার না করেন সেই বিষয়ে সতর্ক করা হচ্ছে। গো’য়েন্দা বিভাগে র তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই অ্যাপগুলো একেবারেই নিরাপদ নয়। এই অ্যাপগু’লি সাহায্যে বিপুল পরিমাণ তথ্য বাইরে চলে যাচ্ছে।সম্প্রতি সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমসের মাধ্যমে এরকম একটি চাঞ্চল্য কর বিষয়ে সকলের সামনে উঠে এসেছে।

জুম, টিকটক, ইউসি ব্রাউজার, জেন্ডার, শেয়ার ইট, ক্লিন মাস্টার এই অ্যাপগুলির মাধ্যমেই সাধারণত মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য বাইরের দেশে চলে যাচ্ছে। তাই সাধারণ জনগণ যাতে এই অ্যাপ গুলো ব্যবহার না করে সেই বিষয়ে সতর্ক করে জানানো হয়েছিল কিছুদিন আগে সেই পরিপ্রেক্ষিতে ভারত সরকার সরাসরি পদক্ষেপ নিল। ব্যান করল টিকটক পাবজি সহ চীনের 59 টি অ্যাপ। এছাড়াও কেন্দ্র সরকারের এক আধিকারিকের তরফে জানানো হয়েছে, ওই সকল অ্যাপগুলিতে যে লিংক ব্যবহার করা হয়, তা দিয়ে যে কোন অপরাধমূলক কাজ করা হতে পারে।

দেশের নিরাপত্তার কারণে চিনা হার্ডওয়ার, সফটওয়্যার এর বিরু’দ্ধে সন্দে’হ প্রকাশ করা হয়েছে গো’য়েন্দা সংস্থার তরফে। কেন্দ্রের তরফে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। এই বছরই জুম অ্যাপ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।শুধু ভারতেই নয় অন্যান্য একাধিক দেশেও এই অ্যাপ এর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। যদি এটা কোন চিনা অ্যাপ নয়।

এই বিষয় সম্পর্কে অবহিত কিন্তু নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক উচ্চ পদস্থ আমলা জানিয়েছে,দেশের সাইবার সুরক্ষায় নিয়োজিত গো’য়েন্দা সংস্থাগুলি থেকে এই অ্যাপগুলো র বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট রিপোর্ট পাওয়ার পরেই এ বিষয়ে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রের উপরমহলে। এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা চলছে।পাশাপাশি কোন অ্যাপ থেকে কতটা বিপর্যয় এর আ’শঙ্কা রয়েছে তা জানার জন্য প্রত্যেকটি অ্যাপ ধরে ধরে আরও বিশদ পরীক্ষা চালানো হচ্ছে বলে দাবি আধিকারিকের।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে জুম ভিডিও অ্যাপ সম্পর্কে এই ধরনের একটি সতর্কবার্তা প্রকাশ করেছিল জাতীয় সাইবার সুরক্ষা সংস্থা কম্পিউটার ইমারজেন্সি রেসপন্স টিম অফ ইন্ডিয়া।তারপর এই দেশের সরকারি ক্ষেত্রে ব্যবহার নিষিদ্ধ করে দেবার পাশাপাশি দেশবাসীকে এর ব্যাপারে সচেতন করা হয়েছিল।জুম কর্তৃপক্ষ তাদের সুরক্ষার গলদ আছে মেনে নিয়ে আগামী দিনে নিরাপত্তা আরও ঢেলে সাজানো হবে বলে বলেছে তারা আশ্বাস দিয়েছেন।

নতুন সিকিউরিটি প্যাচ নিয়ে জুম আবার ফিরে এলো, সরকারের নিষেধাজ্ঞা কিন্তু তার ওপর থেকে তখনো উঠে যায় নি। তার মধ্যেই আবার তার নাম কালো তালিকায় ঢুকে পড়ায় পরিস্থিতি তাদের জন্য আরো শক্ত হয়ে গেল বলে মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা। টিকটকের মূল সংস্থা দায়িত্বের তরফের সরকারিভাবে বিবৃতি জারি তাদের অ্যাপ থেকে কোনরকম তথ্য চুরির কথা অস্বীকার করা হয়েছে।

সরকারি আধিকারিকদের দাবি অনুযায়ী, তাদের কাছে নির্দিষ্ট প্রমাণ আছে যে একাধিক চীনা ডেভেলপারের অ্যাপ বা চীনা সংস্থার সঙ্গে কোনো ভাবে যুক্ত থাকা অন্য দেশের একাধিক মোবাইল অ্যাপ থেকে গ্রাহকের অজান্তেই স্মার্টফোনে স্পা’ইওয়্যার বসিয়ে দেওয়া হচ্ছে বা অন্য কোন মাধ্যমে তাদের থেকে গো’পন তথ্য চু’রি করা হচ্ছে।

যে অ্যাপ গু’লি ব্যান করা হয়েছে দেখে নিন তার লিস্ট

সেজন্যই সরকারি আধিকারিক এবং বিশেষ করে দেশের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সব রকম সরকারি কর্মী হিসেবে ব্যবহার করতে নিষেধ করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞ দের দাবি, চাইলে সীমান্ত সমস্যার থেকেও দেশে অসংখ্য মোবাইল গ্রাহকের ফোনের মাধ্যম দিয়ে বড় ধরনের সন্ত্রা’স চালাতে পারে চীনা কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে আমাদের আরো অনেক সজাগ থাকতে হবে।

About admin

Check Also

BIG UPDATE: গতকাল প্রধানমন্ত্রীর উচ্চ পর্যায়ে বৈঠকের পর ভারতে তৈরি ক’রোনা ভ্যা’কসিনের হি’উম্যান ট্রায়ালে ছাড়পত্র দেয়া হলো

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবার আগেই ক’রোনা ভ্যা’কসিন নিয়ে বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ক’রোনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *