Breaking News

ক’রোনা যো’দ্ধা বিডিওকে ভাড়া বাড়িতে ঢুকতে বাঁধা, তৎক্ষণাৎ পু’লিশ বাড়ির মালিকসহ ৬ জনকে গ্রে’প্তার করে পু’লিশের ভূমিকায় পঞ্চমুখ নেটপাড়া

ছোট্ট মেয়েকে নিয়ে ভরদুপুরে মহিলা বিডিওকে দীর্ঘক্ষণ রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হলো, ঢুকতে পেলেন না আরামবাগের ভাড়া বাড়িতে। ঘটনাটি ঘটেছে গোঘাটা এক নম্বর ব্লক সংলগ্ন অঞ্চলে। ক’রোনা যো’দ্ধা হাওয়ায় বাড়ির মালিক এবং প্রতিবেশী রাখি আমি তাকে বাড়িতে ঢুকতে দেয়নি। কাজেই পু’লিশের সাহায্য নিতে হলো তাকে। পু”লিশ বিক্ষো’ভকারীদের অনেকভাবে বুঝানোর চেষ্টা করে। হাতজোড় করে মহিলা ভিডিওকে বাড়িতে ঢুকতে দেয়ার পরামর্শ দেন। কাজ না হওয়ায় পু’লিস লাঠিচার্জ করে বিক্ষো’ভকারীদের সরিয়ে দিয়ে বিডিওকে তাঁর ভাড়াবাড়িতে ঢোকানোর ব্যবস্থা করে দেন।

মহিলা বিডিওকে বাড়িতে ঢুকতে না দেওয়ার ঘটনায় আরামবাগ মহকুমা জুড়ে নি’ন্দার ঝ’ড় উঠেছে। শনিবার রাতে গোঘাট এক নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মনোরঞ্জন পাল, তৃণমূলের ব্লক সভাপতি নারায়ণচন্দ্র পাঁজা ও বিডিও অফিসের দু জন কর্মী ক’রোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন। ওই ব্লকেরই বিডিও সুরশ্রী পাল আরামবাগ শহরের চোদ্দো নম্বর ওয়ার্ডের মাঠপাড়া এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করেন। এমনকি সেখান থেকেই তিনি প্রতিদিন অফিসে যাতায়াত করেন। বিডিও অফিসের কর্মী ক’রোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন জানার পরেই এদিন দুপুরে বিডিও কে নিজেরই ভাড়াবাড়িতে ঢুকতে বাধা দেয় বাড়ির কর্ত্রী।

এই ক্ষেত্রে ওই বিডিও বলেন,”আমি একজন করোনা যোদ্ধা। সরকারি নির্দেশ মেনে আমাকে বিভিন্ন জায়গায় যেতে হচ্ছে। আমাকে দয়া করে ঢুকতে দিন। কিন্তু, তাতেও কাজ হয়নি।এরপর বিডিও বলেন, আমি ক’রোনার টেস্ট করাতেও রাজি আছি। তবে রি’পোর্ট নেগেটিভ এলে আপনাদের ক্ষমা চাইতে হবে।” এ কথা শোনার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশীরা আরো খি’প্ত হন তার ওপর। মুখের কথায় কাজ হবেনা বুঝতে পেরে, ওই বিডিও পু’লিশ ডাকেন। পু’লিশ এসে পরিস্থিতি মোকাবিলা করেন। এমনকি,বাধ্য হয়ে ৯ জনকে গ্রে’প্তার করে পু’লিশ। এরপর নিজের বাড়িতে প্রবেশ করেন ওই বিডিও।

আরামবাগ মহকুমা শাসক নৃপেন্দ্র সিংহ জানান, সাধারণ মানুষের জন্যই তাঁরা জীবনের ঝুঁ’কি নিয়ে দিনরাত্রি কাজ করে চলেছেন। কিন্তু যাদের জন্য তাঁরা প্রা’ণপাত করছেন তারাই পর্যাপ্ত সচেতন নয়। অন্যদিকে,প্রত্যেকদিন ক’রোনা আ’ক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অসম লড়াইয়ে প্রথম সারির যো’দ্ধাদের সাথে এমন আচরন কখনোই কাম্য নয়। নিজেদের জীবন বিপন্ন করে অন্যের জন্য ল’ড়ে চলেছেন তারা। এই ঘটনার ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষো’ভে ফেটে পড়েন নেটিজেনমহল।

https://www.facebook.com/103960707858305/posts/162351045352604/

About admin

Check Also

বাবা সামান্য বেতনের ইলেকট্রিক মিস্ত্রি ছেলে পেলো ৭০ লক্ষ টাকা বেতনের চাকরি

মধ্যবিত্ত বা নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে মেধাতালিকায় বহুবার নাম উঠে এসেছে ছাত্র-ছাত্রীদের। অভাবের অনটনের মধ্যে যারা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *