Breaking News

সীমা’ন্ত সংঘা’তের মাঝে ভাবে সফল ভারতের তৈরি বিধ্বং’সী মিসা’ইল “ধ্রুবা’স্ত্র” ! ভিডিও প্রকাশ করলো ভারতীয় সে’না

‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রচারের আওতায় ভারতীয় সে’নাবাহিনীর আরও একটি মহান উদ্যোগ। অ্যান্টি-ট্যা’ঙ্ক ‘ধ্রুব’স্ত্র’ ক্ষেপণা’স্ত্রটি সম্প্রতি সফলভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। সব থেকে বড় কথা হল এই ক্ষেপণা’স্ত্রটি ভারতে তৈরি। হেলিকপ্টার সহযোগে চালিত নাগ ক্ষেপণা’স্ত্র হেলিনা ওড়িশার বালাসোরে পরীক্ষা করা হয়েছিল। এই ক্ষেপণা’স্ত্রটির নামকরণ করা হয়েছে এখন ‘ধ্রুব’স্ত্র’ অ্যান্টি-ট্যা’ঙ্ক গাইডেড মিসা’ইল।

ভারত-চীন সংঘ’র্ষের জেরে কিছু হটেনি ভারত। উ’ল্টে নিজেদের সেনাবা’হিনীকে গোড়া থেকে ঢেলে সাজানোর ব্যবস্থা করছে। রাশিয়া আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আনা হ’তো ভারতে। এবার ভারতের তৈরি মিসা’ইল ব্যবহৃত হবে জরুরী পরিস্থিতি তে। সূত্রের খবর ১৫ এবং ১৬ জুলাই ওড়িশার আইটিআর বা’লাসোরে সফলভাবে পরীক্ষামূলক উৎক্ষে’পণ করা হয়েছে এই ক্ষেপণা’স্ত্র। জানা গিয়েছে যে যে হেলিকপ্টার ছাড়াই পরীক্ষাটি করা হয়েছিল।

খবরে বলা হয়েছে যে, এই ক্ষেপণা’স্ত্রটি পরীক্ষার পরে ভারতীয় সে’নাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হবে। এটি ভারতীয় সে’নাবাহিনীর ধ্রুব হেলিকপ্টার দিয়ে ব্যবহৃত হবে। এটি আ’ক্রমণ বা’হিনীর হেলিকপ্টার ধ্রু’বতে মো’তায়েন করা হবে, যাতে সময় এলে সঙ্গে সঙ্গেই শ’ত্রু আক্র’মণ করতে পারে। ক্ষেপণা’স্ত্রটি তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন নামক একটি সংস্থা।ডি’আর’ডিও নিজের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে যে, “ধ্রুবা’স্ত্র” হলো তৃতীয় প্রজন্মের অ্যা’ন্টি ট্যাং’ক মিসা’ইল অর্থাৎ এটিজিএম।

চার কিলোমিটার অব্দি টা’র্গেট করতে পারে এই ক্ষেপণা’স্ত্র,এমনটাই জানিয়েছে ডি’আর’ডিও প্রতির’ক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা। এটি যেকোন ধরনের শ’ত্রু ট্যাং’ক কে উ’ড়িয়ে দিতে সক্ষম। আর এই ধরনের ক্ষেপণা’স্ত্রগু’লির জন্য অন্য কোনও দেশের উপর নির্ভর করতে হবেনা ভারতকে। ভারতীয় সে’নাবাহিনীর সে’নাবাহিনীর একটি বড় সাফল্য হিসাবে বিবেচিত হবে এই ক্ষেপণা’স্ত্র।

এই ক্ষেপণা’স্ত্রের সিস্টেমটি সারা দিন এবং রাতের সময়ে সমস্ত আবহাওয়াতে একই ভাবে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে যথেষ্ট স’ক্ষম। বি’স্ফো’রক প্রতিক্রিয়াশীল বর্ম সহ প্রচলিত ট্যা’ঙ্কগু’লি এবং যু’দ্ধের ট্যাঙ্কগু’লিকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বং’স করতে পারে।

About admin

Check Also

দেহের কোথায় তিল থাকলে কি হয় জানেন ?এইখানে তিল থাকলে ভাগ্য সুপ্রসন্ন হয়, জেনে নিন বিস্তারিত ।

প্রাচীন সমুদ্র শাস্ত্রে তিল দেখে ভাগ্য নির্ধারণের পদ্ধতি বর্ণনা করা আছে। তিল দেখে আমরা ভবিষ্যৎ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *