Breaking News

একসময় হোটেলে বাসন মাজার কাজ করেছেন, বাড়ি বাড়ি টিউশনে পড়িয়েছেন, আজ কঠোর পরিশ্রমে আই.পি.এস অফিসারের সুন্দরী যুবতী..

ইউ.পি.এস.সি ভারতের সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা বলে মনে করা হয়। অন্যদিকে কেউ কেউ বলেন যে ইউ.পি.এস.সি পরীক্ষা সবচেয়ে সহজ। শুধু মানুষের মনের ধারণা সঠিক হওয়া উচিত। আজ আমরা আপনাকে এমন একজন মহিলার কথা বলবো যিনি একটি হোটেলে রিসেপশনিস্ট হিসেবে কাজ করতেন এবং বাচ্চাদের টিউশনি শেখানোর জন্য পরিশ্রম করতেন। তার নাম পূজা যাদব যিনি বিদেশে চাকরি ছেড়ে ভারতে এসে দেশের সেবায় নিয়োজিত হয়েছেন এবং আই.পি.এস অফিসার হয়েছেন।

এটার পিছনের কাহিনি খুবই আকর্ষণীয় যা অনেক মানুষকে মুগ্ধ করে। হরিয়ানায় বসবাসকারী পূজা যাদব পড়াশোনা শেষ করে বায়োটেকনোলজিতে এমটেক করেন এবং তারপর জার্মানিতে চাকরি পান। তারপর সে জার্মানিতে গিয়ে তার কাজ শুরু করেন । তিনি বলেন তার ফিরে আসার পেছনে কারণ ছিল যে তার মনে হয়েছিলো যে দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করা উচিত এবং অন্য কোন দেশের উন্নয়নে অবদান রাখা উচিত নয়।

এই বিষয়গুলো মাথায় রেখে পূজা চাকরি ছেড়ে ভারতে ফিরে আসেন যেখানে তিনি ইউ.পি.এস.সি পরীক্ষা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। নিজের দেশের সেবা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি এবং এর জন্য তিনি বিদেশের লাখ টাকার চাকরি ছেড়ে ভারতে ফিরে এসেছিলেন। কিন্তু ভারতে এসে তার যাত্রা খুব একটা সহজ ছিল না। তারপর যখন তিনি ইউ.পি.এস.সি পরীক্ষা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তখন তিনি হোটেল রিসেপসনিস্টের কাজ করেন এবং শিশুদের একসাথে টিউশনি পড়াতেন।

ভারতে আসার পর যখন তিনি কঠোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ইউ.পি.এস.সি-র তখন তিনি প্রথমবারের প্রচেষ্টাতে কিন্তু সাফল্য পাননি। কিন্তু তা সত্বেও তিনি হাল ছাড়েননি এবং দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় ইউ.পি.এস.সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এখন তিনি আই.পি.এস পদে কর্মরত হন। এবার তিনি একজন আই.এ.এস অফিসারকে বিয়ে করেছেন। পূজার দেশের প্রতি ভক্তি এবং ভালোবাসা সবার সামনে একটি উদাহরণ হিসেবে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

About Web Desk

Check Also

বিহারের প্রত্যন্ত গ্রামের 21 বছরের এই মেয়েটি, গুগলের 60 লাখ টাকা প্যাকেজের চাকরি পেল। শুভেচ্ছা বার্তা সোশ্যাল মিডিয়ায়

আগেকার দিনে মেয়েদের পরিধি রান্নাঘর আর বাড়ির কাজের মধ্যেই সীমিত ছিল। পড়াশোনাতে মেয়েদের কোনো অধিকার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *