Breaking News

দুই মেয়ের ফাঁদে এক ছেলে…. টসের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নিল গ্রামবাসীরা।

বিয়ের আগে পরিবারের সদস্যদের সম্মতি থেকেও বেশি ছেলে এবং মেয়ের সম্মতি আবশ্যক। কিন্তু কর্নাটকে টস এর মাধ্যমে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ঘটনাটি কর্নাটকের তালুকের একটি গ্রামের যেখানে এক যুবককে দুই মেয়ের সাথে সম্পর্কের কারণে বিয়ের আগে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। উভয় মেয়ে বিয়ের আগে সেখানে পৌঁছায় এবং তাদের নিজের দাবিতে অটল থাকে এবং অবশেষে গ্রামবাসীরা এই সমস্যার সমাধান খুঁজতে টস করে।

উভয় মেয়ের এই ব্যাপারে অভিযোগ ছিল যদি যুবক বিয়ে করে তবে কেবল তাকেই বিয়ে করতে হবে। গ্রামবাসীরা অনেক বোঝানোর চেষ্টা করেছে কিন্তু তাদের কেউই মানতে নারাজ। এমনকি এক তরুণী আত্মহত্যার চেষ্টা করে। অবশেষে গ্রামবাসীরা সিদ্ধান্ত নেন যে কোন মেয়ে সেই ছেলের বউ হবে এবং এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে টসের মাধ্যমে। টস এর আগে একটি শর্ত রাখা হয়েছিল যে,

প্রথমে একটি বড় পরিবারের 3 জন লোকের স্বাক্ষর থাকতে হবে এবং যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হোক না কেন তা মেনে নিতে হবে। পুরো প্রক্রিয়ার পরে যখন টস করার পালা আসে তখন নীরব যুবক তার ইচ্ছা প্রকাশ করে,যুবকটি প্রথম প্রেমিকাকে বিয়ে করতে চায়। এই কাজ থেকে অন্য মেয়েটি থেমে থাকতে পারে না সে যুবকটিকে সেখানে একটি চড় বসিয়ে দেয়। এর মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যুবকটি কোন মেয়ের সাথে বিয়ে করবে এবং তারপর আর টস করা হয় না।।

About Web Desk

Check Also

ঠোঁটে লিপস্টিক, চোখে কাজল, নতুন লুকে ফের নেট দুনিয়া কাঁপাচ্ছে রানু মন্ডল, ভাইরাল ভিডিও

রানাঘাটের রানু মণ্ডলকে চেনে না এমন মানুষ বর্তমানে দুষ্প্রাপ্য। এক সময় রানাঘাট রেল স্টেশনে গান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *