Breaking News

অটোচালকের মেয়ে আজ করে দেখিয়েছে এই কাজ! মাত্র 21 বছর বয়সে 41 লাখ টাকা রোজগার করছেন!

জীবনে সংঘর্ষ করা প্রতিটি ব্যক্তি অপর কোন মানুষের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকেন। জীবনে কোনো কিছু করার প্রবল ইচ্ছা থাকলে তবে আকাশও ছুঁতে পারা যায়। এমনই একজন হলেন অমৃতা কারান্দে। তিনি এক অটোচালকের মেয়ে। সম্প্রতি তিনি 41 লাখ টাকার অ্যানুয়াল প্যাকেজের চাকরি পেয়েছেন। 21 বছরের অমৃতা কোলহাপুর শহরের বাসিন্দা। তিনি কোলহাপুর ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি তে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করেন।

এই পড়াকালীনই প্রি প্লেসমেন্টে তিনি অংশগ্রহণ করেন এবং চাকরি পেয়ে যান। অমৃতা যেই সফটওয়্যার কোম্পানিতে চাকরি পেয়েছেন তা অ্যাডোব য়ুপস এর সাথে যুক্ত। মাত্র 21 বছর বয়সের অমৃতা না শুধু চাকরি পেয়েছেন তার পাশাপাশি 41 লাখ টাকার অ্যানুয়াল প্যাকেজও লাভ করেছেন। অমৃতার বাবা অটোচালক বিজয় কুমার মেয়ের পড়াশোনার জন্য অনেক সংঘর্ষ করেছেন।

কোলহাপুর ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির চেয়ারম্যান সুনীল কুলকার্নি অমৃতার সিলেকশনে ভীষণ খুশি হয়েছেন। এর আগেও কোডিং কম্পিটিশনে অমৃতা ভালো রেংক পেয়েছিলেন। তারপর তিনি আড়াই মাস ইন্টার্নশিপ করেছিলেন। পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতেন অমৃতা। সেখান থেকেই তার সুযোগ হয়ে যায় সফটওয়্যার কোম্পানিতে এই চাকরীর। অমৃতার কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকারা ও তার সহপাঠীরা খুশি হয়েছে তার এই সফলতায়।

অমৃতা পশ্চিম মহারাষ্ট্রের প্রথম মেয়ে যিনি এত হাই রাঙ্কে চাকরি পেয়েছেন, তাও এত অল্প বয়সে। অমৃতা ছোট থেকেই পড়াশোনায় ভালো। প্রথমদিকে অমৃতা ডাক্তার হতে চেয়েছিলেন কিন্তু এসএসসিতে ভাল রাঙ্ক পাওয়ার পর তার ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রতি ঝোঁক সৃষ্টি হয়। এইভাবে অমৃতা মেডিকেলের পড়াশুনার বদলে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে কলেজে ভর্তি হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। এরপর অমৃতা কোলহাপুর ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি তে ভর্তি হন এবং আজ তিনি চাকরিও পেয়ে গেছেন।

About admin

Check Also

23 বছরের এই ভাই-বোনের জুটি 1 লাখ টাকা ইনভেস্ট করে যে অভিনব উপায়ে আজ 800 কোটি টাকার ব্যবসা দার করান, জানলে আপনিও অনুপ্রাণিত হবেন

একটি মেয়ে তার ভাইয়ের সাথে মিলে নিজেদের পরিবারকে সফলতার সেই শিখরে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছেন যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *