Breaking News

সমাজ স্বীকৃতি দেবে না তাই এই পথ অবলম্বন করে, এক মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করেছিলেন সুনীল শেট্টি

সুনীল শেট্টিকে নব্বইয়ের দশকের অন্যতম অ্যাকশন হিরো বলে মনে করা হয়। তার অভিনয়, অ্যাকশন এবং স্টাইলের দিওয়ানা অনেকেই ছিলেন। আজও তার প্রতিটি লুকস্ খুব সহজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। সুনীল শেট্টির প্রফেশনাল লাইফ নিয়ে কমবেশি প্রত্যেকেই জানেন কিন্তু আজ আমরা আপনাদের তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বলবো।

সুনীল শেট্টি ও তার স্ত্রী মানা শেট্টির প্রেম বিবাহ হয়েছিল। মানা শেট্টি হাফ পাঞ্জাবি এবং হাফ মুসলিম পরিবারের সাথে সম্পর্কযুক্ত। সুনীল শেট্টি কর্নাটকের তুলু ভাষার মানুষ। মালাবার হিল স্থিত এক পেস্ট্রি শপ এ প্রথমবার সুনীল শেট্টি মানাকে দেখেন। মানা-কে প্রথম দেখাতেই সুনীল শেট্টি তার প্রেমে পড়ে যান। মানার সাথে বন্ধুত্ব করার জন্য সুনীল শেট্টি প্রথমে মানার বোনের সাথে বন্ধুত্ব করেন।

এরপর মানার বোনের সাহায্যে সুনীল শেট্টি মানার সাথে ঘনিষ্ঠ হন। ধীরে ধীরে তাদের বন্ধুত্ব সম্পর্কের রূপ নেয়। মানাকে প্রথম দেখেই সুনীল শেট্টি বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তাই তাদের সম্পর্ক শুরু হওয়ার পর নিজেদের পরিবারকে একে অপরের ব্যাপারে জানালে জাতি ধর্ম আলাদা হওয়ায় তাদের সম্পর্ক মেনে নিতে অস্বীকার করে তাদের পরিবার।

অনেক বোঝানোর পরেও যখন তাদের পরিবার তাদের সম্পর্ককে মেনে নেয় না তখন তাদের কাছে পালিয়ে বিয়ে করা ছাড়া আর কোনো উপায় ছিল না। কিন্তু তারা এই পথ অবলম্বন করেন না। বরং তারা অপেক্ষা করার কথা ভাবেন। নয় বছর পর তাদের পরিবার মেনে নেয় তাদের সম্পর্ককে। এরপর 1991 সালে সুনীল শেট্টির সাথে মানার বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের আথিয়া শেট্টি নামে এক কন্যা সন্তান আছে যে বর্তমানে শেট্টি প্রোডাকশনের সিনেমাতে কাজ করার জন্য নিজেকে তৈরি করছে।।

About Web Desk

Check Also

“যারা হিজড়া বলে মজা করত তারাই এখন তাকে স্যালুট করে”, কঠোর পরিশ্রমে শিবন্যা আজ সাব-ইন্সপেক্টর

যদিও দেশের সর্বোচ্চ আদালত সমকামিতাকে মর্যাদা দিয়েছে কিন্তু এলজিবিটি কিউ আজ পর্যন্ত সমাজে সমতার মর্যাদা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *