Breaking News

রানু মণ্ডলের পর অবিকল কুমার শানুর কন্ঠে গান গেয়ে ভাইরাল পুলিশ কর্মী মৃন্ময়, ভিডিও পোস্ট করলেন অতিন্দ্র

রানু মন্ডল এর নাম মাথায় এলেই অনেকের হাসি পেয়ে যায়, তা যে কারণেই হোক না কেন। রানু মন্ডল এর গলা ছাড়া আর কোন গুনই তার মধ্যে নেই। তার অসংলগ্ন কথাবার্তা, তার মুখের অঙ্গিভঙ্গি বারবার উপহাসের সৃষ্টি করেছে। এই রানু মন্ডল কে আবিষ্কার করেছিলেন অতীন্দ্র। অতীন্দ্র একজন স্বেচ্ছাসেবক দলের অধিকর্তা।

তিনি এটি রেলওয়ে স্টেশনে রানু মন্ডল কে গান গাইতে দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ভাইরাল করে দেন। তার পরের ইতিহাসটা আমাদের সকলেরই জানা।ফের অতীন্দ্র একটি ট্যালেন্টহান্ট বলে ওয়েবসাইট শুরু করেছেন। এই ওয়েবসাইটের কাজ হলো দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষের ভেতরে লুকিয়ে থাকা গুণগুলোকে খুঁজে বার করা।

এটা ট্যালেন্ট হান্ট দুই হাজার কুড়ি সম্প্রতি খুঁজে পেয়েছেন আর এক অসাধারণ গায়ক কে। ইনি কোন রেলওয়ে স্টেশনের ভিখারি নয়, ইনি বাঁকুড়ার সাব ইন্সপেক্টর মৃন্ময় ঘোষ। সম্প্রতি মৃন্ময় ঘোষ এর একটি ভিডিও সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়। এই ভিডিওটি দেখে তার গানের মুগ্ধ শ্রোতা হয়েছেন অনেকেই। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, মৃন্ময় ঘোষ তাঁর অফিসে বসেই অবিকল কুমার শানুর নকল করে একটি গান গাইলেন। চোখ বন্ধ করে হঠাৎ এই গানটি শুনলে মনে হবে, গানটি হয়তো স্বয়ং কুমার শানু গাইছেন। শাহরুখ খান এবং মহিমা চৌধুরী অভিনীত “পরদেশ” সিনেমার “দো দিল মিলরাহা হে মাগার চুপকে চুপকে”এই গানটি গেয়েছেন মৃন্ময় ঘোষ।

ভিডিওটিতে ইতিবাচক এবং নেতিবাচক দুই প্রকার কমেন্ট এসেছে। অনেকেই মৃন্ময় ঘোষ কে গানের জগতে আসতে বলছেন।তিনি আরও উন্নতির শিখরে পৌঁছতে পারবেন গানের হাত ধরে, এমন ধারণা অনেকের।

আবার কেউ কেউ বলছেন, অবিকল কুমার শানুর গলায় গান আগে নিজস্বতা ধরে রাখলে বহুদূর পৌছাতে পারবেন মৃন্ময় ঘোষ। কাউকে নকল করলে কিছুদিনের মধ্যেই হারিয়ে যেতে হবে তাকে, যেমনটা রানু মন্ডল কে হারিয়ে যেতে হয়েছে।

https://www.facebook.com/106849194020095/posts/301025797935766/?sfnsn=wiwspwa&extid=X3bSVuzEEhpGhPso&d=w&vh=e

About admin

Check Also

গবেষণায় দেখা গেছে অল্পবয়সী দম্পতিরাই বিয়ের পর বেশি পরিমাণে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে, কারণ জানলে চমকে যাবেন

বিয়ে করার মনোভাব সাধারণত দুই রকমের হয়। এক হয় সদর্থক, অর্থাৎ কেউ বিয়ে করতে চান।আর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *