Breaking News

ছেলে কোটিপতি জন আব্রাহামের বাবা-মা অটোতে করে যাতায়াত করেন…. কেন জানেন?

বলিউড অভিনেতা জন আব্রাহামকে কে না চেনে! আজ তিনি বলিউডের এক পরিচিত মুখ। তিনি নিজের বডি ও ফিটনেসের জন্য যুবকদের মধ্যে বেশ বিখ্যাত। জানিয়ে রাখি জন আব্রাহাম তার কেরিয়ার মডেলিং দিয়ে শুরু করেছিলেন। একসময় তিনি হাই পেয়েড মডেলদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন। এরপর তিনি “জিস্ম” ফিল্ম দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন এবং লোকপ্রিয়তা লাভ করেন। জন আব্রাহাম এক মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। কিন্তু আজ তিনি পরিশ্রমের দ্বারা এক সফল অভিনেতা হয়েছেন।

জন আব্রাহাম প্রতি ফিল্ম পিছু 15 কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন। তার ফিল্ম বক্স অফিসে বেশ হিটও হয়। জন আব্রাহাম বলিউড কে সুপারহিট ফিল্ম দিয়েছেন তিনি প্রমাণ করে দিয়েছেন “ধুম” আর “রেস 2” এর মতো অ্যাকশন ফিল্ম হোক বা “গরম মসলা” র মত কমেডি ফিল্ম হোক আবার “সত্যমেব জয়তে” ও “পরমাণু” র মত দেশাত্মবোধক সিনেমা সবেতেই তিনি পারদর্শী। আজ জন আব্রাহামের কোন কিছুর কমতি নেই।

একটি রিপোর্ট অনুযায়ী জন আব্রাহামের 220 কোটি টাকার সম্পত্তি রয়েছে এবং মুম্বাইয়ের পশ এলাকায় 5100 স্কয়ার ফুটের ফ্ল্যাট আছে। এহেন জন আব্রাহামের বাবা-মা আজও পাবলিক ট্রান্সপোর্টে যাতায়াত করেন। জন আব্রাহাম একটি ইন্টারভিউ তে জানিয়েছিলেন তার বাবা-মা সাধারণ জীবন যাপন করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। এমনকি জন আব্রাহাম নিজেও সাধারণ জীবন যাপন করেন। সারাক্ষণ লাইমলাইটে থাকা বলিউডের অন্যতম অভিনেতা জন আব্রাহাম কোনো পার্টিতে গেলে একটি সাধারন টি-শার্ট, জিন্স ও চপ্পল পরে চলে যান।

তাকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান শু পরতে তিনি কম্ফোর্টেবল অনুভব করেন না, এর থেকে তার কাছে চপ্পল বেশি আরামদায়ক। জন আব্রাহামের এহেন জীবনযাপন আমাদের শিক্ষা দেয় মানুষ যতই বড় হয়ে যাক না কেন তার পা সব সময় মাটিতে থাকা প্রয়োজন। এই অভিনেতার সম্প্রতি “সত্যমেব জয়তে 2” এবং “মুম্বাই সাগা” ফিল্ম দুটি রিলিজ হয়েছে। এই ফিল্ম দুটি বক্স অফিসে বেশ ভালো লাভের মুখও দেখেছে। রিপোর্ট অনুযায়ী সম্প্রতি জন আব্রাহাম “এক ভিলেন 2” তে অভিনয় করতে চলেছেন।

About admin

Check Also

23 বছরের এই ভাই-বোনের জুটি 1 লাখ টাকা ইনভেস্ট করে যে অভিনব উপায়ে আজ 800 কোটি টাকার ব্যবসা দার করান, জানলে আপনিও অনুপ্রাণিত হবেন

একটি মেয়ে তার ভাইয়ের সাথে মিলে নিজেদের পরিবারকে সফলতার সেই শিখরে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছেন যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *