Breaking News

আপনার শোবার ঘরে এই জিনিসগুলো রাখবেন না !তাহলে আপনার জীবনে অমঙ্গল ডেকে নিয়ে আসবে

যে কোনও বাড়ির সুখ, শান্তি এবং সমৃদ্ধির জন্য, এর বাড়ির বাস্তু নিখুঁত হওয়া দরকার। যদি আপনার বাড়িতে বাস্তু দোষ পাওয়া যায় তবে, দুঃখ ও দারিদ্র্যের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। বাস্তু শাস্ত্র মতে বলা আছে ঘরের বিভিন্ন জিনিসকে সঠিক দিকে রাখলে বাস্তুদোষ কেটে যায় । সুতরাং, আজকের এই নিবন্ধে, আমরা শয়নকক্ষ অথবা শোবার ঘরে সম্পর্কিত বাস্তুশাস্ত্র নিয়ে আলোচনা করব।

শোবার ঘরগুলি যে কোনও বাড়ির একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হিসাবে বিবেচিত হয়। এটি সেই জায়গা যেখানে লোকেরা শৃঙ্খলে ঘুমায় এবং অনেক ব্যক্তিগত কাজও করে। সুতরাং, আপনার শোবার ঘরে প্রশস্ততা পুরো বাড়ির শান্তি এবং সমৃদ্ধির জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। শোবার ঘরে রাখা জিনিসগুলি যদি বাস্তুর সাথে সামঞ্জস্য না হয় তবে নেতিবাচক শক্তির মাত্রা বাড়ে।একই সাথে, বাস্তু সঠিক হলে শক্তি বৃদ্ধি পায়। আপনাকে সেই দিকগু’লো খেয়াল রাখতে হবে তাই জন্য তাই জন্য আপনাদেরকে বলবো নিচের নিচের জিনিসগু’লো নিচের তথ্যগু’লো মেনে এই জিনিসগু’লি শোবার ঘরে রাখবেন না।

আয়না অসুভ বস্তু : শাস্ত্রের মতে আপনার শোবার ঘরে আয়না থাকা উচিত নয়। তবে, আপনি আয়না রাখলেও রাতে ঘুমানোর সময় এটি কোনও কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে যেন ঘুম থেকে উঠে আয়নার সামনে যেন সরাসরি মুখ দেখা না যায় তবে  শোবার ঘরে আয়না না রাখলেই ভালো হয়। এতে আপনারই মঙ্গল হবে।

জুতো ঝাড়ু: কোনও ঝাড়ু, জুতো এবং নোংরা কাপড় বেডরুমের ভিতরে রাখা উচিত নয়। এই সমস্ত জিনিস ময়লা যা নেতিবাচক শক্তি কারণ। এই নেতিবাচক শক্তি আপনার বাড়ির পরিবেশকে নষ্ট করতে পারে। সুতরাং আপনার এই সমস্ত জিনিস স্টোর রুমে বিচ্ছিন্ন রাখা উচিত। জুতা ঝাড়ু এমন ভাবে রাখুন যাতে এগু’লো যাতে সব সময়় চোখে না পরে।

লোহার আসআসবাবপত্র : শোবার ঘরের মধ্যে লোহার তৈরি আসবাব রাখা উপযুক্ত বলে না। এছাড়াও বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে আপনার নিজের শোবার ঘরে বৃত্তাকার আকারের আসবাব রাখা উচিত নয়।আপনি শোবার ঘরে যে বিছানায় শুতে যান তার নীচে ট্রাঙ্ক জাতীয় কোন জিনিস রাখা উচিত না। এই জিনিসগু’লি নেতিবাচক শক্তি উত্পাদন করতে পারে যা আপনার দেহে প্রবেশ করবে। এবং আপনার চিন্তাভাবনাগু’লিকে নেতিবাচক করে তুলবে।

কখনো খারাপ ছবি রাখবেন না: কখনই বেডরুমে আ’ক্রমণা’ত্মক, হিং’সাত্মক বা বিপ’জ্জনক দেখতে ছবি রাখবেন না।  দুঃখিত মুখ বা কান্নাকাটি মুখ আছে এমন  কারও ছবি রাখবেন না। এটি করে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ভালবাসা কমিয়ে দেয়। পরিবারের সব সময়় অশান্তি লেগে থাকবে। ফলে আপনার পরিবারের ওপর অশুভ দৃষ্টি লেগে থাকবে।

আপনার শোবার ঘরটি এমনভাবে হওয়া উচিত যাতে সবসময় আলো পিছন বা বাম দিক থেকে আসে। বাস্তু অনুসারে এটি শুভ বলে বিবেচিত হয়।শোবার ঘরে বিছানা আপনার দরজার খুব বেশি কাছাকাছি হওয়া উচিত নয়।বাস্তুর মতে, এটি করা অশান্তি এবং বিভ্রান্তি বজায় রাখে। তাই বিছানাকে সর্বদা শোবার ঘরের দরজা থেকে কিছুটা দূরে রাখুন।

আপনি শোবার ঘরে পা এবং মাথা রেখে কোন দিকে ঘুমাচ্ছেন, এটিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বাস্তুর মতে উত্তর দিকে পা রেখে ঘুমানোর সময় আপনার দক্ষিণ দিকে বিছানায় মাথা রাখা উচিত।আশা করি আপনি শোবার ঘরের সাথে সম্পর্কিত এই বিশাল টিপসটি পছন্দ করেছেন। আপনার আজ থেকে তাদের অনুসরণ করা উচিত। আপনি এর সুবিধা পেতে শুরু করবেন।

About admin

Check Also

শিল্পা শেট্টির এই পাঁচটি নিকৃষ্টতম কেচ্ছা যা দেখলে মানুষ এখনো গালি দেয়!

বলিউডের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী হলেন শিল্পা শেট্টি। যদিও তিনি বর্তমানে বড়ো পর্দা থেকে দূরেই আছেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *