Breaking News

মাত্র ৮ বছর বয়সেই বাড়ির সব খরচ চালায় বাচ্চা মেয়েটি, এখনো পর্যন্ত সে যেভাবে ২৮ কোটি টাকার মালিক হয়েছে জানলে আপনার হুশ উড়ে যাবে

বলিউডের পাশাপাশি টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে অনেকে অভিনয় করেছেন, যারা কঠোর পরিশ্রম করে আজ তাদের সফলতার উচ্চতায় পৌঁছেছেন। অনেক অভিনেতা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে তাদের ক্যারিয়ার গড়তে এসেছেন, কিন্তু যদি বাচ্চাদের কথা বলা হয়, তবে তারাও কিন্তু পিছিয়ে নেই। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক বড় তারকারা রয়েছেন, যারা তাদের দুর্দান্ত অভিনয় দিয়ে দর্শকদের হৃদয়ে তাদের জায়গা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন। কিন্তু আজ আমরা সেই মেয়েটির সম্পর্কে বিশেষ কিছু বলতে যাচ্ছি, যে 8 বছর বয়সে কোটি কোটি টাকা আয় করে।

সে কিন্তু স্টারকিড নয়, তবুও সে তার নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে কোটি কোটি দর্শকের হৃদয় এ রাজত্ব করে। আমরা আপনাকে মায়রা সিং সম্পর্কে একটি বিশেষ জিনিসের কথা বলতে যাচ্ছি। আপনি অবশ্যই স্টার প্লাসের জনপ্রিয় ‘কুলফি কুমার বাজেওয়ালা’র প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখেছেন তাকে।

6 জুলাই, 2011 সালে দিল্লিতে জন্ম নেওয়া মায়রা সিং প্রতিটি শিশুর দ্বারা স্বীকৃত হবে ঘরে ঘরে। স্টার প্লাসের জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘কুলফি কুমার বাজেওয়ালা’ দিয়ে, অল্প বয়সে প্রচুর অর্থ উপার্জন করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন এবং শুধু তাই নয় এত অল্প বয়সে মায়য়া সিং তার পুরো পরিবারের খরচ নিজেই বহন করেন।

আপনি জানলে অবাক হবেন, মায়রা এত অল্প বয়সে 28 কোটি টাকার মালিক, সে প্রতিদিন 25 হাজার টাকা আয় করেন। এছাড়াও মাইরা অনেক বিজ্ঞাপন থেকেও প্রচুর আয় করে চলেছেন।

‘কুলফি কুমার বাজেওয়ালা’ চরিত্রের মায়রা সিং সবার প্রিয় হয়ে উঠেছেন। শোতে মীরার চরিত্রটি বেশ প্রশংসনীয়। বিশেষ বিষয় হল এই শোটির কারণে মায়রার ভাগ্য উজ্জ্বল হয়েছে এবং তিনি রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেছেন।

অল্প বয়সী মায়রা সিং তার মতো অনেক বাচ্চাদের জীবনে কিছু করার অনুপ্রেরণা, আর সবথেকে বড় উৎস। এছাড়াও দর্শকরাও মায়রার কিউট মুখ দেখতে ও শুনতে আগ্রহী।

About admin

Check Also

23 বছরের এই ভাই-বোনের জুটি 1 লাখ টাকা ইনভেস্ট করে যে অভিনব উপায়ে আজ 800 কোটি টাকার ব্যবসা দার করান, জানলে আপনিও অনুপ্রাণিত হবেন

একটি মেয়ে তার ভাইয়ের সাথে মিলে নিজেদের পরিবারকে সফলতার সেই শিখরে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছেন যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *