Breaking News

চা বিক্রেতা বাচ্চাটির সাথে ডিআইজি যা করলেন ভিডিও নিমিষে ভাইরাল

শিশুশ্রম দন্ডনীয় অপরাধ সে কথা আমরা প্রত্যেকেই জানি। শিশুদের জীবনে একটাই লক্ষ্য পড়াশোনা খেলাধুলার মাধ্যমে সুশৃংখলভাবে বেড়ে ওঠা এবং সুনাগরিক হিসেবে পরিচিতি লাভ করা।

সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যাতে দেখা যাচ্ছে ডি আই জি একটি ১৩ বছরের বাচ্চাকে চা বিক্রি করতে ধরেছেন। তার নাম মোহিত সাহানি, বাবার নাম কৈলাস সাহানি। সে চা বিক্রি করছে কেন সে কথা জিজ্ঞাসা করা হয়। তার বয়স কত? আদৌ স্কুলে পড়ে কিনা সে? এহেন নানান প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেন ডিআইজি ছেলেটিকে।

আসলে ভারতবর্ষের দারিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী মানুষদের বাবা- মায়েরা পেটের খিদের জ্বালাকেই গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তাঁরা মনে করেন না পড়াশোনা শেখার প্রয়োজনীয়তা আছে। দু’বেলা দু’মুঠো ভালোভাবে খেতে পারাটাই আসল কথা, অভাবের সংসারে পড়াশোনা করানো তাদের কাছে বিলাসিতা।

আর পেটের খিদে মিটলে তবেই পড়াশোনার কথা মাথায় আসে। তবে এ ক্ষেত্রে যা জানা গেছে ছেলেটি বাবার চা বিক্রি কাজে সাহায্য করে মাত্র। এমনকি কখনো কখনো তার মাও তার বাবার কাজে সাহায্য করে থাকেন।

ছেলেটি নিয়মিত স্কুল যান, করোণা পরিস্থিতিতে যেখানে নিয়মিত স্কুল খোলা নেই, সপ্তাহে তিনদিন স্কুল খোলা তাও সে নিয়মিত স্কুল যায়। তার পাশে তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় যে, পারিবারিক কোনো সমস্যা আছে কিনা।

তাদের ছেলেকে তিনি লেখাপড়া করতে পাঠান কিনা নিয়মিত স্কুলে, যদিও তার উত্তরে তাঁর বাবা জানান ছেলে প্রতিদিন স্কুলে যায়। ছেলেটিকে বারবার জানান যে এই বয়স লেখাপড়া করার, চা বিক্রি করার নয়। এরপর দিন থেকে যেন তাকে এইকাজে না দেখা যায়।

About Web Desk

Check Also

বরকে স্কুটিতে বসালেন নববধূ , অতপর যা হলো

বলা হয়ে থাকে যে, স্বামী-স্ত্রী বিবাহিত জীবনের বাহনের দুই চাকা। দাম্পত্য জীবনের এই বাহনে স্বামী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *