Breaking News

দশম শ্রেণি ফেল করার পরেও আজ তিনি যেভাবে IAS অফিসার হলেন! জানলে চমকে যাবেন

কিছু শিশু আছে যারা ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনায় ভালো হয় এবং তারা লক্ষ্য তৈরি করে তা অর্জন করে। কিন্তু কিছু শিশু আছে যারা ছোটবেলা থেকেই
পড়াশোনায় ভালো নয়, এমনকি পরীক্ষাতেও তারা ফেল করে এবং একটি লক্ষ্য তৈরি করেও সফল হয় না।

আজ আমরা এমন এক ব্যক্তির কথা বলছি, যিনি দশম শ্রেণীতে ফেল করেছিলেন, কিন্তু নিজের পরিশ্রমের দ্বারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। আসুন জেনে নিই কিভাবে একজন ছাত্র দেশের কঠিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সফলতা পেল। আকাশ কুলহারি, যিনি রাজস্থানের বিকানেরের বাসিন্দা।

ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনায় অনেক দুর্বল ছিলেন। কিন্তু তিনি এই বার্তা দিয়েছেন জীবন যেকোনো সময় শুরু করা যায় এবং সাফল্য পাওয়া যায়। একটি সাক্ষাৎকারের সময় আকাশ বলে যে, “দশম শ্রেণীতে ফেল করার কারণে তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল, যার কারণে তার বাবা-মা খুব কষ্ট পেয়েছিল।”

এই ঘটনাটি আকাশের মনে গভীর প্রভাব ফেলে এবং সে পড়ালেখায় সিরিয়াস হয়ে পড়ে। পড়ালেখার প্রতি সিরিয়াস থাকায় কঠোর পরিশ্রম শুরু করেন, যার ফলে দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় তিনি 85 শতাংশ নম্বর পেয়েছিলেন। দ্বাদশ শ্রেণীর ফলাফলের মাধ্যমে, তিনি আবার তার পিতামাতার আস্থা অর্জন করেছিলেন।

আকাশ কমার্স ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে ছিল, তাই সে বি.কম থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছে। এই সময়, তার সামনে দুটি বিকল্প ছিল। প্রথমত, এম.বি.এ-তে ভর্তি হয়ে কর্পোরেট সেক্টরে যোগ দেওয়া এবং দ্বিতীয়ত, সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার দিকে যাওয়া। তিনি দ্বিতীয় বিকল্পটি বেছে নেন।

তিনি সিভিল সার্ভিসকে তাঁর নিজের লক্ষ্যে পরিণত করেন এবং এর জন্য প্রস্তুতি নিতে থাকেন। আকাশ বলে যে, “আমি পড়ালেখা নিয়ে খুব একটা সিরিয়াস ছিলাম না কিন্তু যেদিন থেকে আমি সিভিল সার্ভিসে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, সেদিন থেকে আমি পড়াশোনা শুরু করি।”

2006 সালে আকাশ তার প্রথম প্রচেষ্টায় সাফল্য অর্জন করেন। একটি সাক্ষাৎকারে আকাশ জানায় যে, তার মা চেয়েছিলেন তার সন্তানরা অফিসার হয়ে দেশের সেবা করুক। মায়ের এই ইচ্ছা পূরণের জন্য তিনি এই পথে যাত্রা করেন এবং সাফল্য পেয়ে তিনি তার মায়ের স্বপ্ন পূরণ করেছেন।

About admin

Check Also

23 বছরের এই ভাই-বোনের জুটি 1 লাখ টাকা ইনভেস্ট করে যে অভিনব উপায়ে আজ 800 কোটি টাকার ব্যবসা দার করান, জানলে আপনিও অনুপ্রাণিত হবেন

একটি মেয়ে তার ভাইয়ের সাথে মিলে নিজেদের পরিবারকে সফলতার সেই শিখরে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছেন যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *